ছবিঃ সংগৃহীত

হঠাৎ শীতের ্তিব্রতা বাড়ছে বাতাশে এক প্রকার কাবু যুবক বৃধ্য সকলেই। ঠান্ডা থেকে বাচতে এ সময়  অনেকেই গোসলের দ্বারস্থ হতে চান না। তার পরও একটু পরিচ্ছন্ন থাকার জন্য সবাই কে গোসল করতেই হয়। তাই শীতে গোসলের জন্য বেছে নেয়া হয় গরম পানি। অধিকাংশ মানুষই মনে করেন গরম পানি শরিরের জন্য অত্যন্ত উপকারি। কিন্ত আপনি জানেন কি এই গরম পানি মোটেও আপনার জন্য উপকারি নয় বরং ক্ষতি কারক চলুন জেনে নেয়া যাক এর ক্ষতি কর দিক গুলো।
প্রচন্ড ঠান্ডায় গরম পানি দিয়ে গোসল করলে হঠাত হার্ড এটাক এর সম্ভাবনা বেডে যায় । এতে হার্ডের অনেক ক্ষতি হয় তাই যারা হার্ডের সমস্যায় ভুকছেন তারা গোসলে অবশ্যই গরম পানি পরিহার করুন।


পূরুষের জন্য গরম পানি দিয়ে গোসল করা অত্যন্ত ক্ষতি কর এতে পূরুষের সন্তান জন্ম দানের ক্ষ্মতা, অনেক ক্ষানি ক্ষতি করে । গরম পানি দিয়ে অনেক ক্ষন গসল করলে শরিরের ফ্যটিলিটি কমে যায়। তাই পূরুষদের উচিত গরম পানি পরিহার করে ঠান্ডা পানি দিয়ে গসল করা এতে স্পাম পাউন্ট বৃদ্ধি পায়।
শীতের সময়ে তক আদ্র রাখা অত্যন্ত জরুরি । কিন্ত গরম পানি দিয়ে গসল করলে শরিরের আদ্রতা অত্যন্ত দ্রুত হারায়।ত্বক রুক্ষ হয়ে ওঠে। তাই ত্বকের সুস্থতা ধরে রাখতে গরম পানিতে গোসল করা বন্ধ করুন।
গরম পানিতে গসল করলে আমাদের শরিরে রক্ত চাপের পরিবর্তন হতে শুরু করে ফলে এই সময় আমাদের শরিরের রক্ত সরবরাহ ঠিক রাখতে হার্টকে অনেক বেশি কাজ করতে হয়। যার ফলে যাদের হার্টের সমস্যা আছে তাদের হার্ড এটাকের ঝুকি অনেক খানি বেডে যায়।


গরম পানি শরিরে পরা মাত্র রক্তচাপে হেরফের হেরফের  হতে শুরু করে । ফলে শ্ররীরের কর্মক্ষমতা কমে  গিয়ে মাথা ঘোরা গা গোলনোর মতো লক্ষন দেখে দিতে হবে।
তাই শীতের ভয়ে গরম  পানি দিয়ে গোসল নয় বরং ঠান্ডা পানি দিয়ে ভয় কে জয় করুন। সারাদিন সতেজ থাকতে পারবেন। তেমনি সুস্থ থাকতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *